জগন্নাথপুর টাইমসশুক্রবার , ১৭ নভেম্বর ২০২৩, ৪ঠা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. খেলা
  3. গ্রেট ব্রিটেন
  4. ধর্ম
  5. প্রবাসীর কথা
  6. বাংলাদেশ
  7. বিনোদন
  8. বিশ্ব
  9. মতামত
  10. রাজনীতি
  11. ল এন্ড ইমিগ্রেশন
  12. লিড নিউজ
  13. শিক্ষাঙ্গন
  14. সাহিত্য
  15. সিলেট বিভাগ
 
আজকের সর্বশেষ সবখবর

বৃটিশ- বাংলাদেশী টিচার্স এসোসিয়েশনের এডুকেশন্যাল সেমিনার অনুষ্ঠিত

Jagannathpur Times BD
নভেম্বর ১৭, ২০২৩ ২:০৮ অপরাহ্ণ
Link Copied!

 

মুহাম্মদ সাজিদুর রহমান :

বৃটিশ- বাংলাদেশী টিচার্স এসোসিয়েশনের (বি বি টি এ) আয়োজনে সম্প্রতি “এক্সেলেন্স ইন টিচিং এন্ড লীডারশীপ” শীর্ষক একটি এডুকেশন্যাল সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। এটি অনুষ্ঠিত হয়েছে পূর্ব লন্ডনে অবস্থিত লন্ডন এন্টারপ্রাইজ একাডেমীতে। সেমিনারের সংক্ষিপ্ত পরিচিতি এবং এর লক্ষ্য উপস্থাপন ও বিশ্লেষণমূলক সূচনাপর্বে সভাপতিত্ব করেছেন বিবিটিএ-র সভাপতি মোহাম্মদ আবু হোসেন। বিশেষ সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মান্যবর সাঈদা মুনা তাসনিম। সমগ্র অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল বাসিত চৌধুরী। সেমিনারটির লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য ছিলো:- ১) স্নাতক ডিগ্রীধারী অথবা যারা স্নাতকে অধ্যয়ন করছেন কিংবা টিচিং এসিস্ট্যান্ট হিসেবে স্কুল-কলেজে কাজ করছেন, বিশেষ করে স্কুল-কলেজে অধ্যয়নরত অবস্থায় অদূর ভবিষ্যতে শিক্ষকতা পেশাটি নিয়ে হয়তোবা যারা খানেকটা ভাবছেন, তাদের উৎসাহ দান করা এবং এ পেশায় প্রবেশের বিভিন্ন পথ ও এর আদ্যপান্ত সম্পর্কে অবহিত করা এবং তথ্যাদি প্রদান করা। ২) অধুনা যারা শিক্ষকতায় নিয়োজিত রয়েছেন, এ পেশায় বিভিন্ন দায়িত্বপূর্ণ পদে তথা উচ্চপদে যারা আসীন হওয়ার আকাঙ্খা করছেন, এমনকি চুড়ান্ত নেতৃত্বে (নির্বাহী হেড মাস্টার) সমাসীন হওয়ার একান্ত বাসনা পোষণ করছেন, তাদের অনুপ্রাণিত করা এবং এ ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় যোগ্যতা অর্জনে করণীয় সম্বন্ধে ওয়াকিবহাল করা। ৩) শিক্ষকদের শিক্ষকতা পেশায় অনেক সময় বিভিন্ন সমস্যার মোকাবেলা করতে হয়। সংখ্যা-লঘু সম্প্রদায়, বিশেষ করে বৃটিশ-বাংলাদেশী শিক্ষকদের শিক্ষকতা পেশায় নানাবিদ সমস্যা ও চ্যালেজ্ঞের সম্মুখীন হলে কি করা প্রয়োজন, তার জন্য উপদেশমূলক কিছু তথ্য প্রদান করা হয়। ৪) শিক্ষকতা পেশায় নিজের দক্ষতা বজায় রেখে নিজের উন্নতি সাধন করা এবং মানসিক শরীরকে সুস্থ রেখে জীবন পরিচালনার পথ সহজভাবে চালিয়ে যাবার উপর উপদেশ দেয়া হয়। অনুষ্ঠানে নিম্নোক্ত শিক্ষকতা ও শিক্ষাদান বিষয়ক বিশেষজ্ঞ ব্যক্তিবর্গ শিক্ষকতা সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয়ে বক্তব্য উপস্থাপন করেন, তারা হলেন: ক্যাম্ব্রিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর অফ সোস্যাল এডুকেশন ও বিশিষ্ট গবেষক ডক্টর স্যালী অ্যালটন-চালক্রাফ্ট, প্রিন্সিপাল লেকচারার অফ এডুকেশন, ক্যাম্ব্রিয়া বিশ্ববিদ্যালয় – ড্যানিয়্যাল ডেনিস, লন্ডন এন্টারপ্রাইজ একাডেমীর প্রিন্সিপাল আশিদ আলী এবং অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ, গবেষক ও লন্ডন এন্টারপ্রাইজ একাডেমীর এসোসিয়েট প্রিন্সিপাল ডক্টর মাইকেল হারপাম। সেমিনারে যোগদানকারী সকলেই শিক্ষকতায় নিয়োজিত হবার বিভিন্ন উপায়, শিক্ষকতায় বাঙালিসহ সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের শিক্ষকগনের চ্যালেঞ্জসমূহ, শিক্ষকতায় উৎকর্ষ সাধনসহ বিভিন্ন বিষয়ে তথ্যাদি সম্পর্কে সুস্পষ্ট ধারণা লাভ করেছেন। এছাড়া সবাই শিক্ষকতা পেশার ভবিষ্যত সম্ভাবনা বা এটাকে পেশা হিসেবে বিবেচনা করতে আগ্রহী এবং এ পেশার ধারাবাহিকতা বজায় রাখা ও এর উচ্চতর বিভিন্ন পর্যায়ে নিজেদের উন্নীত করার (প্রমোশন), সুযোগ সুবিধা, পন্থা, উপায় চ্যালেঞ্জ ইত্যাদি বিষয়ে সম্যক অবহিত হতে এবং জিজ্ঞাস্য বিষয়গুলো জানতে পেরেছেন। পূর্ব প্রস্তুত সেমিনার পরিচালনাকারী অতিথি বিশেষজ্ঞগণ স্লাইড প্রদশর্নীর মাধ্যমে প্রতিটি বিষয়ের স্পষ্ট ব্যাখ্যা দান করেন। তারা যোগদানকারীদের নানা ধরণের জানার বিষয়ে আলোকপাত করেন ও শিক্ষকতা বিষয়ক তাদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন। চারটি বিষয়ের উপর বিশেষজ্ঞদের আলোচনার পরিশেষে সেমিনারের মূল কয়েকটি তথ্য উপস্থিত সেমিনারে অংশগ্রহনকারীদের মধ্যে পড়ে শোনান বিবিটিএ-র সিনিয়র ভাইস প্রসিডেন্ট মুমিতুর রেজা চৌধুরী, সাংস্কৃতিক সম্পাদক সম্পাদক মুনজেরীন রশীদ, কার্যকরী সদস্য শাবিতা সামশাদ ও সহ-সাধারণ সম্পাদক কানিজ আশরাফী। প্রফেসর ডক্টর স্যালী অ্যালটন-চালক্রাফ্ট তার বক্তব্যে শিক্ষকদের লিডারশিপ এবং ম্যানেজারিয়াল পজিশনে দায়িত্ব গ্রহণ করার প্রতি অনুপ্রাণিত করেন।‌ চ্যালেঞ্জ কিংবা ভবিষ্যতে আরও উন্নতি হওয়ার আকাঙ্ক্ষা না থাকলে একঘেয়েমি প্রশাসনে থাকতে থাকতে মানুষের এক ধরনের বিরক্তি এসে যায়। তাই লিডারশিপ চ্যালেঞ্জিং হলেও সেখানে অনেক বেশি আকর্ষণীয় এবং উচ্চ বেতনে কাজ করার সুযোগ আছে। বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ডক্টর মাইকেল হারপ্রাম বলেন শিক্ষকতা হচ্ছে এমন একটি পেশা যেখানে অনেক বেশি আত্মতৃপ্তি আছে, চ্যালেঞ্জিং আছে, নিজেকে তুলে ধরার সুযোগও আছে – বিশেষ করে ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে গড়ে তোলার গুরু দায়িত্ব এবং সমাজকে কিছু দেবার আছে, সাথে সাথে নিজের মানসিক অবস্থাকে সুস্থ রাখতে সচেতন থাকতে হবে। ব্রিটেনে অবস্থানরত বাংলাদেশ সরকারের মান্যবর হাইকমিশনার সাঈদা মুনা তাসনিম ব্রিটিশ বাংলাদেশী টিচার্স এসোসিয়েশন এরকম একটি গুরুত্বপূর্ণ সেমিনার আয়োজন করার জন্য বি বি টি এ -কে অভিনন্দন জ্ঞাপন করেন। তিনি আরো বলেন, “ ব্রিটেনে বাংলাদেশীরা বিভিন্ন পেশায় দক্ষতার সাথে কাজ করে যাচ্ছেন, এজন্য আমরা গর্বিত।” অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এমন একটি আয়োজনের প্রশংসা করে বি বি টি এ সহ এর সঙ্গে সম্পৃক্ত সবার প্রতি ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেছেন। সেমিনারে অংশগ্রহনকারী সকলেই এ থেকে বেশ উপকৃত হয়েছেন বলে অভিমত প্রকাশ করেছেন । সেমিনারে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন বি বি টি এ-র সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও টাওয়ার হেমলেটস কাউন্সিলের লীড কেবিনেট মেম্বার অব কালচার কাউন্সিলার ইকবাল হোসেন। প্রথমবারের মত বি বি টি এ -র এ ধরণের আয়োজনে যোগ দিয়ে এটিকে সফল করার জ্ন্য সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানিয়েছেন সংগঠনের সভাপতি আবু হোসেন। বি বি টি এ-র সেমিনার কমিটি অনুষ্টান সফল করার জন্য অনেক কাজ করেছে, তাদের মধ্যে রয়েছেন এসোসিয়েশনের সিনিয়র ভাইস প্রসিডেন্ট মুমিতুর রেজা চৌধুরী, সিনিয়র সদস্য রেহানা খানম রহমান, সাবেক সভাপতি মোস্তফা কামাল মিলন, কোষাধ্যক্ষ মিসবা কামাল আহমদ, সহ-সভাপতি মুজিবুল হক মনি, যুগ্ম- সাধারণ সম্পাদক ডক্টর রোয়াব উদ্দীন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মাহবুব হোসেন, প্রচার সম্পাদক মোহাম্মদ শাহজাহান, কার্যকরী সদস্য হাবিবুর রহমান, কার্যকরী সদস্য মোহাম্মদ আব্দুল মুক্তাদির, সাংস্কৃতিক সম্পাদক মুনজেরীন রশীদ, কার্যকরী সদস্য শাবিতা সামশাদ, কার্যকরী সদস্য হাসনা রহমান, কার্যকরী সদস্য রোকশানা গনি ও সহ-সাধারণ সম্পাদক কানিজ আশরাফী।

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি।