জগন্নাথপুর টাইমসবুধবার , ২২ মার্চ ২০২৩, ১১ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. খেলা
  3. গ্রেট ব্রিটেন
  4. ধর্ম
  5. প্রবাসীর কথা
  6. বাংলাদেশ
  7. বিনোদন
  8. বিশ্ব
  9. মতামত
  10. রাজনীতি
  11. ল এন্ড ইমিগ্রেশন
  12. লিড নিউজ
  13. শিক্ষাঙ্গন
  14. সাহিত্য
  15. সিলেট বিভাগ
 
আজকের সর্বশেষ সবখবর

সিলেটের বিশ্বনাথে মুক্তিযোদ্ধার প্রজন্মর পিঠা উৎসব আলোচনা ও পুরস্কার বিতরণ সম্পন্ন

Jagannathpur Times Uk
মার্চ ২২, ২০২৩ ৭:২৬ অপরাহ্ণ
Link Copied!

সিলেট :

সিলেটের বিশ্বনাথে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে ৭১ এর বীর মুক্তিযোদ্ধার গর্বিত সন্তানদের সংগঠন মুক্তিযোদ্ধার প্রজন্মর উদ্যোগে পিঠা উৎসব আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার (২২ মার্চ ২০২৩) সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার অলংকারী ইউনিয়নের আল-মুছিম স্কুল এন্ড কলেজে এ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

মুক্তিযোদ্ধার প্রজন্ম সভাপতি সাংবাদিক কবি নাজমুল ইসলাম মকবুল এর সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন ব্রিটিশ বাংলাদেশ চেম্বার অফ কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি লন্ডন রিজিওনের প্রেসিডেন্ট, জেএমজি কার্গো ইউ.কে এন্ড ইউরোপ এবং নলেজ হারবার স্কুল এন্ড কলেজ সিলেট এর চেয়ারম্যান মনির আহমেদ।

অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচকের বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশনের প্রযোজক এবং সিলেট ভয়েস ডটকম এর প্রকাশক রোটারিয়ান সেলীনা চৌধুরী।
আল-মুছিম স্কুল এন্ড কলেজের সিনিয়র শিক্ষক মোঃ আব্দুল হামিদের পরিচালনায় ও প্রবীণ সালিশ ব্যক্তিত্ব মজিরুল ইসলাম চৌধুরী তকবির মিয়া ও আল মুছিম স্কুল এন্ড কলেজের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক আতিকুর রহমান লিটনের উদ্বোধনী বক্তব্যের মাধ্যমে সুচিত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন নলেজ হারবার স্কুল এন্ড কলেজ সিলেট এর প্রিন্সিপাল অধ্যাপক কবি নাজমুল আনসারী, যুক্তরাজ্য প্রবাসী সমাজসেবী ও শিক্ষানুরাগী মোঃ নজির আলী, লেখক ও সাহিত্য সংগঠক কবি লুৎফুর রহমান তারেক, বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আমিনুল হক দুদু, সৌদি আরব প্রবাসী সমাজসেবী ও শিক্ষানুরাগী দুলাল আহমদ, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সন্তান সংসদ কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সিলেট বিভাগীয় কমান্ড কাউন্সিলের আহবায়ক সাজিদুর রহমান সোহেল, আল-মুছিম স্কুল এন্ড কলেজের প্রিন্সিপাল মোঃ মানিক মিয়া।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মনির আহমেদ বলেন, জাতীর শ্রেষ্ঠ সন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধারা দীর্ঘ নয়মাস জীবন বাজি রেখে যুদ্ধ করে আমাদেরকে স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্র উপহার দিয়েছেন। তাদের মধ্যে অনেকেই শহীদ হয়েছেন। স্বাধীন এই দেশ উপহার দেয়ায় জাতি তাদের কাছে চিরঋনী। শুধু তাই নয়, বর্তমান এবং ভবিষ্যত প্রজন্মও তাদের কাছে ঋনী। এ ঋন শোধ করা কারো পক্ষে সম্ভব নয়। তিনি মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে আবহমান গ্রাম বাংলার চিরায়ত ঐতিহ্য পিঠা উৎসবের মতো ব্যতিক্রমী আয়োজন করায় মুক্তিযোদ্ধার প্রজন্ম নেতৃবৃন্দকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন আপনাদের সৃজনশীল সকল কাজে আমাদের সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি।